Role of mass media in imparting education শিক্ষাবিস্তারে গণমাধ্যমগুলির ভূমিকা

0
71
Role of mass media in imparting education

Role of mass media in imparting education শিক্ষাবিস্তারে গণমাধ্যমগুলির ভূমিকা


শিক্ষার প্রয়োজনীয়তা সম্পর্কে স্বামী বিবেকানন্দ বলেছিলেন ‘ Education is the fulfilment of divinity already in man . ” অর্থাৎ মানুষের অন্তরের দেবত্বের উদ্বোধনই শিক্ষার লক্ষ্য । পৌরাণিক যুগে আর্য ও আর্যতর জাতির সংমিশ্রণে উদ্ভূত সংকর জাতির মধ্যে জনশিক্ষা প্রচারিত হয়েছিল প্রধানত সূত ও চারণগণের দ্বারা । তারপর কালের বিবর্তনে জনশিক্ষার মাধ্যমগুলিও বিস্তৃত হয়েছে — যাত্রাগান , পাঁচালি , ব্রতকথা , কথকতা , মঙ্গলগান , বাউল গান , কীর্তন , মুশিদি প্রভৃতির মধ্য দিয়ে আনন্দ ও শিক্ষা — দুই – ই সমাজে পরিব্যাপ্ত হয়েছে ।

Role of mass media in imparting education

ইংরাজ আমলে ভারতবর্ষ প্রথম জড়বাদী ইউরোপীয় শিক্ষা , সংস্কৃতি ও সভ্যতার সংস্পর্শে আসতে থাকে । ব্যয়বহুল শিক্ষা দেশের সামগ্রিক জনসমাজকে অঙ্গীভূত না করে মুষ্টিমেয় শ্রেণীর মধ্যেই আবদ্ধ হয়ে পড়ল । ফলে দেশের মধ্যে স্বাভাবিক ভাবেই এখটি অভিনব কৃত্রিম ভেদরেখা সৃষ্টি হল — শিক্ষিত ও অশিক্ষিত ।

১৯৪৭ খ্রিস্টাব্দে স্বাধীনতা লাভের পর পরিবর্তিত অবস্থাতে সেই শিক্ষাব্যবস্থার খোল – নলচে রাতারাতি পরিবর্তন করা না গেলেও তার সঙ্গে নতুন একটা মাত্রা যুক্ত হয়েছে । দেশের অশিক্ষিত জনসাধারণকে শিক্ষিত করে তোলার দায়িত্ব পড়েছে দেশের স্বাধীন সরকারের উপর । যে কোন গণতান্ত্রিক দেশের গণতন্ত্রের অতন্দ্র প্রহরী হল সেই দেশের শিক্ষিত সচেতন মানুষ ।

Also Read Olympic অলিম্পিক গেমস 2026

গণশিক্ষার মাধ্যম হিসাবে সংবাদপত্রের বিশেষ ভূমিকা আছে । দেশ – বিদেশের সংবাদাদি পরিবেশন ও চিন্তামূলক প্রবন্ধাদি প্রকাশে একটা গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা সংবাদপত্রের । বস্তুত মাধ্যম হিসাবে সংবাদপত্রের প্রসার খুব বেশি । একই আধারে আমরা খেলা – ধূলা , ব্যবসা – বাণিজ্য , রাজনীতি , নতুন আবিষ্কার , শেয়ার মার্কেট , কর্মখালি , বাজার – দর পাই — এক কথায় সমস্ত পৃথিবী যেমন একটি সংবাদপত্রের মধ্য দিয়ে আমাদের ঘরের কাছে তথা মনের কাছে এসে হাজির হয় । এ দেশে নিরক্ষরতা যত দ্রুত বিদূরিত হবে , সংবাদপত্রাদির ভূমিকাও তত উজ্জ্বল ও শক্তিশালী হয়ে উঠবে ।

work from home without investment বাড়িতেবসে ইনকাম করুন

পাশ্চাত্য দেশগুলিতে জনশিক্ষার ব্যাপারে চলচ্চিত্র একটা বিশেষ গুরুত্বপূর্ণ স্থানের অধিকারী । চলচ্চিত্রের দ্বিবিধ ভূমিকা আছে — আনন্দবিতরণ ও ব্যাপক জনসংযোগ তথা জনশিক্ষাদান । আনন্দদানের সঙ্গে সঙ্গে স্বদেশের ও পৃথিবীর বিভিন্ন দেশের প্রকৃতি ও মানব জীবনের বিচিত্র দিকের , নানা বৈশিষ্ট্যের সন্ধান দিয়ে সুশিক্ষা দেবার ব্যাপারেও চলচ্চিত্রের মস্ত বড় ভূমিকা আছে ।

Communalism and Student Society সাম্প্রদায়িকতা ও ছাত্রসমাজ

চলচ্চিত্রের মতই বিজ্ঞানের অভিনব আবিষ্কার দূরদর্শনও একালে গণশিক্ষার একটি প্রকৃষ্ট মাধ্যম হয়ে উঠেছে । এই মাধ্যমটির দ্বারাও একই সঙ্গে আনন্দ দান ও শিক্ষা বিস্তারের যুগ্ম দায়িত্ব পালিত হতে পারে । ভারতের মতো অনুন্নত দেশে অশিক্ষিত জনসাধারণকে দ্রুত শিক্ষিত করে তোলার ব্যাপারে দূরদর্শন বিশিষ্ট ভূমিকা পালন করতে পারে । সুখের কথা সরকার দূরদর্শনের মাধ্যমে দ্বিপ্রাহরিক আসরে উচ্চ শিক্ষামূলক অনুষ্ঠান প্রচার করে জনগণের নিকট বিজ্ঞান শিক্ষাকে সর্বজনীন করে তোলার প্রয়াস শুরু করেছেন ।

বিজ্ঞানের অগ্রগতির সঙ্গে সঙ্গে গণশিক্ষার এই যে নতুন নতুন মাধ্যম সমূহ আবিষ্কৃত হয়েছে , সেগুলি এদেশেও যথার্থ সফল বা কার্যকরী হয়ে উঠতে পারে , যদি মাধ্যমগুলিকে সুপরিকল্পিত ভাবে প্রয়োগ করা যায় । এগুলির অপপ্রয়োগ যাতে না ঘটে , সেদিকে তীক্ষ্ণ সতর্ক দৃষ্টি রাখা সকলেরই পবিত্র কর্তব্য ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here